আজ-  ,
basic-bank পরিক্ষা মূলক সম্প্রচার...
ADD
সংবাদ শিরোনাম :

লাল সুন্দর ঠোটের যত্নে বেইকিং সোডা

মুক্ত ভাষা, ১৪ নভেম্বর : কোমল গোলাপি ঠোঁটের জন্য ব্যবহার করতে পারেন  বেইকিং সোডা।বদভ্যাস, ধূমপান এমনকি দীর্ঘক্ষণ লিপস্টিক পরে থাকার কারণেও ঠোঁটের ক্ষতি হয়ে কালচেভাব দেখা দিতে পারে। তাছাড়া প্রাকৃতিকভাবে ঠোঁটের রং লাল হলেও অযত্নের কারণে তা বিবর্ণ হয়ে যায়।

রূপচর্চা-বিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, বেইকিং সোডা প্রাকৃতিকভাবে ঠোঁটের রং লাল করতে সাহায্য করে।

বেইকিং সোডার সঙ্গে মধু মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করায় তা কোনো রকম ক্ষতি করে না বরং ত্বক আর্দ্র রাখে।

ব্যবহার পদ্ধতি

– এক চা-চামচ বেইকিং সোডা ও মধু মিশিয়ে তা ঠোঁটের উপর লাগান।

– ঠোঁট খুব বেশি শুষ্ক হলে সোডার চেয়ে মধু বেশি ব্যবহার করুন।

– দুটি উপাদান ভালোভাবে মিশিয়ে ঠোঁটে মেখে ছোট ও গোলাকারভাবে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ঘষে নিন।

– এটা ঠোঁটের ত্বক এক্সফলিয়েট করে মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে।

– মধু অবাঞ্ছিত ময়লা দূর করবে এবং আনবে প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা।Let – – কয়েক মিনিট অপেক্ষা করে এই প্যাক হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

– তারপর ঠোঁটে এসপিএফ যুক্ত লিপ বাম লাগান।

Related Posts
শ্যাম্পু – কন্ডিশনার ব্যবহারে চুলের যত্ন
শ্যাম্পুর পরে কন্ডিশনার ব্যবহার করা ঠিক কিনা অথবা সপ্তাহে কতবার শ্যাম্পু করা চুলের জন্য ভালো তা নিয়ে অনেকেরই সঠিক ধারণা নেই। এই বিষয়ে রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে চুল ও মাথার ত্বকের ভারতীয় ...
READ MORE
শ্যাম্পু – কন্ডিশনার ব্যবহারে চুলের যত্ন
Spread the love
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।