আজ-  ,
basic-bank পরিক্ষা মূলক সম্প্রচার...
ADD
সংবাদ শিরোনাম :
«» আ’লীগ থেকে বহিষ্কৃত হেলেনা জাহাঙ্গীর গ্রেফতার। «» সৈয়দপুরে আ’লীগ সভাপতি মোখছেদুল মোমিনের ফ্রি অক্সিজেন সেবা ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। «» সৈয়দপুরে দন্ডের টাকা পরিশোধ না করে পুলিশ কর্মকতাকে মারধরের ঘটনায় মামলা দায়ের। «» সৈয়দপুরে পুলিশ কর্মকতাকে পেটালেন ভূমি দস্যুর ছেলে বখাটে আতিফ। «» ব্যাটারী চালিত রিক্সা ও ভ্যান বন্ধের সিন্ধান্ত-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। । «» দেশে কোন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার থাকবেনা-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। «» প্রবীন রাজনীতিক শমসের আলী বসুনিয়া আর নেই। «» সৈয়দপুরে চোরাই মটরসাইকেল উদ্ধার,২ জন আটক। «» সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া হাসপাতাল পরিচালনায় কমিটি গঠন ও সংবাদ সম্মেলন। «» সৈয়দপুরে গণমানুষের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় চির বিদায় নিলেন ডাঃ সুরত আলী বাবু।

আজ শোকাবহ ১৫ আগষ্ট।।বাঙ্গালীর পিতা হারানো বেদনার দিন

বছর ঘুরে আবার এসেছে বাংলাদেশের শোকের দিন ১৫ অগাস্ট; গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে জাতি পালন করছে জাতির জনককে হারানোর দিনটিি ।

স্বাধীনতার চার বছরের মধ্যে ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট সেনাবাহিনীর একদল কর্মকর্তা ও সৈনিকের হাতে সপরিবারে জীবন দিতে হয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের নায়ক, তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

তার পরিবারের ছয় বছরের শিশু থেকে শুরু করে অন্তঃসত্ত্বা নারীও সেদিন ঘাতকের গুলি থেকে রেহাই পায়নি।

জাতীয় এই শোকের দিনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে, পালিত হবে নানা কর্মসূচি।

বৃহস্পতিবার প্রথম প্রহরেই ধানমণ্ডির বঙ্গবন্ধু জাদুঘর প্রাঙ্গণ স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপ্রধান মো. আবদুল হামিদ ও সরকারপ্রধান শেখ হাসিনা আলাদা বাণী দিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেছেন, “বঙ্গবন্ধু রাজনৈতিক স্বাধীনতার পাশাপাশি জনগণের অর্থনৈতিক মুক্তি র্অজনের লক্ষ্যে সারাজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠাই ছিল তার স্বপ্ন। তাই আমাদের দায়িত্ব হবে জ্ঞানগরিমায় সমৃদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর অসর্ম্পূণ কাজকে সর্ম্পূণ করে বাংলাদেশকে একটি সুখী ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করা।

“তাহলেই আমরা চিরঞ্জীব এই মহান নেতার প্রতি যথাযথ সম্মান প্রর্দশন করতে পারব।”

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেছেন, “ঘাতকচক্র বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তার স্বপ্ন ও আদর্শের মৃত্যু ঘটাতে পারেনি। আসুন, আমরা জাতির পিতা হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করি।

“তার ত্যাগ এবং তিতিক্ষার দীর্ঘ সংগ্রামী জীবনাদর্শ ধারণ করে সবাই মিলে একটি অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলি। প্রতিষ্ঠা করি জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ। জাতীয় শোক দিবসে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।”

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার সকালে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর প্রাঙ্গণে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন।

কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে ১৫ অগাস্ট নিহতদের আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হবে।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পর আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও সংস্থার পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাবেন।

৪৪ বছর আগে সেই রাতে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু ছাড়াও স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব, তিন ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, শেখ কামালের স্ত্রী সুলতানা কামাল, শেখ জামালের স্ত্রী রোজী জামাল, বঙ্গবন্ধুর ছোট ভাই শেখ নাসেরকে হত্যা করে।

সেই রাতেই নিহত হন বঙ্গবন্ধুর বোনের স্বামী আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তার ছেলে আরিফ, মেয়ে বেবী ও শিশুপৌত্র সুকান্ত বাবু; বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে যুবনেতা শেখ ফজলুল হক মণি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মণি, নিকট আত্মীয় শহীদ সেরনিয়াবাত ও রিন্টু।

ধানমণ্ডির বাড়িতে পুলিশের বিশেষ শাখার সাব ইন্সপেক্টর সিদ্দিকুর রহমান ও নিরাপত্তা কর্মকর্তা কর্নেল জামিলকেও গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা দেশের বাইরে থাকায় সে সময় প্রাণে বেঁচে যান। বঙ্গবন্ধুকে জন্মস্থান গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় দাফন করা হলেও পরিবারের অন্য সদস্যদের ঢাকার বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

সকাল সাড়ে ৭টায় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নেতারা যাবেন বনানী কবরস্থানে। সেখানে জাতির পিতার পরিবার সদস্য ও অন্যান্যদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও দোয়া পাঠ করবেন তারা।

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (ফাইল ছবি)

এরপর টুঙ্গিপাড়ায় গিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবেন শেখ হাসিনা। বিকেলে বঙ্গবন্ধু ভবনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। সেখানেও প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত থাকবেন।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গভবনের দোয়া মাহফিলে রাষ্ট্রপতি উপস্থিত থাকবেন।

এদিন মিলাদ ও দোয়া হবে দেশের সব মসজিদে। মন্দির, প্যাগোডা ও গির্জাসহ সব উপাসনালয়ে হবে বিশেষ প্রার্থনা।

রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের পাশাপাশি আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করার উদ্যোগ নিয়েছে। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হবে।

শোক দিবস উপলক্ষে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ, পোস্টার বিতরণ এবং বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হচ্ছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার এবং বেসরকারি টিভি চ্যানেলগুলো প্রচার করছে বিশেষ অনুষ্ঠান।

১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ শাসন অবসানের পর পূর্ব পাকিস্তানে ছাত্রলীগ গঠনের মাধ্যমে রাজনৈতিক অঙ্গনে আলোচনায় আসেন তিনি।

এরপর বাহান্নর ভাষা আন্দোলন, চুয়ান্নর যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন ও ছেষট্টির ছয় দফা প্রণয়নে ভূমিকা রেখে এবং ১৯৬৮ সালে তথাকথিত আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার প্রধান আসামি হিসেবে শেখ মুজিব বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা হয়ে ওঠেন।

১৯৬৯ এর ছাত্র-জনতার গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে কারামুক্ত হন শেখ মুজিবুর রহমান। এরপর তাকে বঙ্গবন্ধু খেতাবে ভূষিত করে ছাত্র-জনতা। ১৯৭১ সালের উত্তাল মার্চে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) স্বাধীনতার ডাক দেন তিনি।

তার নেতৃত্বে রক্তাক্ত সংগ্রামেই অভ্যূদয় ঘটে স্বাধীন বাংলাদেশের। আর স্বাধীনতার চার বছরের মাথায় নির্মমভাবে প্রাণ হারাতে হয় বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের।

১৯৭৫-এর পর ভিন্ন ভিন্ন রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে পালিত হয়ে আসছে ১৫ অগাস্ট। ’৭৫ এর পর ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ২০ বছর রাষ্ট্রীয়ভাবে দিনটি পালিত হয়নি।

জাতীয় শোক দিবসে শ্রদ্ধার ফুলে ঢাকা ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি (ফাইল ছবি)

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ১৯৯৬ সালে প্রথমবারের মতো ১৫ অগাস্টকে জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয়। ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় গেলে জাতীয় শোক দিবস বাতিল করে দেয়।

পরে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে হাই কোর্টের রায়ে ২০০৮ সাল থেকে দিনটি জাতীয় শোক দিবস হিসাবে পালিত হচ্ছে।

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ইতিহাসের নৃশংসতম এই রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের আত্মস্বীকৃত খুনিদের রক্ষায় ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করা হয়েছিল।

২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যাওয়ার পর বিচার শুরু হয়। তবে বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার পর মামলার গতি শ্লথ হয়ে যায়।

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যাওয়ার পর মামলার বিচার চূড়ান্তভাবে শেষ করার পর ২০১০ সালে পাঁচ খুনির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তবে দণ্ডিত ছয় খুনি এখনও বিভিন্ন দেশে পালিয়ে আছেন।

বাণীতে শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী চক্র ’৭৫ এর ১৫ অগাস্টের পর থেকেই হত্যা, ক্যু ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু করে। তারা ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স জারি করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের পথও বন্ধ করে দেয়।

“জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে মার্শাল ল’ জারির মাধ্যমে গণতন্ত্রকে হত্যা করে। সংবিধানকে ক্ষতবিক্ষত করে। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করে। বিদেশে দূতাবাসে চাকরি দেয়। স্বাধীনতাবিরোধী-যুদ্ধাপরাধীদের নাগরিকত্ব দেয়। রাষ্ট্রক্ষমতার অংশীদার করে। পরবর্তীতে বিএনপি-জামাত সরকারও একই পথ অনুসরণ করে।”

Related Posts
করোনায় করনীয় বিষয়ে রোববার প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন
করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটে সার্বিক পরিস্থিতি এবং তা মোকাবেলায় সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ তুলে ধরতে রোববার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই খবর ...
READ MORE
মাশরাফি একটা হীরার টুকরা—শেখ হাসিনা
আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে   বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অনেক জয়ের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে ভোট দিয়ে জয় এনে দিতে নড়াইল-২ আসনের ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার ঢাকার ...
READ MORE
করোনায় আজ ৩৫ জনের মৃত্যু,নতুন করে আক্রান্ত ২৪২৩ জন।
দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাস সংক্রমনে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৭৮১ জন। নতুন করে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত সনাক্ত হয়েছে ২৪২৩  জন। এ যাবত করোনায় আক্রান্ত ...
READ MORE
হংস বলাকা উদ্ধোধন করলেন প্রধান মন্ত্রী
বাংলাদেশ বিমান বহরে যুক্ত হল আরো একটি অত্যাধুনিক বিমান হংস বলাকা। বিমান এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া এ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ ‘হংস বলাকা’ পরিদর্শন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় বিমানটির পাইলটের আসনেও ...
READ MORE
গুরুতর অসুস্হ্য ওবায়দুল কাদের কে সিঙ্গাপুরে প্রেরন
 গুরুতর অসুস্থ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়েছে । চিকিৎসকরা সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর পর সোমবার বিকাল সোয়া ৪টায় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজোবেথ হাসপাতালের এয়ার ...
READ MORE
শোক দিবসে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন।
জাতীয় শোক দিবসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন। শনিবার সকালে ধানমণ্ডিতে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দেওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয় ...
READ MORE
মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া
অনেক জল্পনা-কল্পনা শেষে অবশেষে মুক্তি পেতে যাচ্ছেন,দৃর্নীতির দায়ে সাজা প্রাপ্ত,কারাঅন্তরীন বিএনপি চেয়ারপারসন,সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। সরকার শর্তসাপেক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে। মঙ্গলবার এক ...
READ MORE
ফুলেল শ্রদ্ধায় শহীদদের স্মরন
 ২১ শে ফেব্রুয়ারী বাংঙ্গালী জাতীর ইতিহাসে এক ঐতিহাসিক দিন। প্রতিবছর শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় এ দিনটি পালন করে দেশবাসি । এ দিন রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক শাসকের বুলেটের সামনে দাঁড়িয়ে ...
READ MORE
করোনায় আরও ৪৫ জনের মৃত্যু,নতুন আক্রান্ত ৩১৭১ জন
দেশে আজ করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ও আক্রান্ত হওয়ার খবর জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাস সংক্রমনে সর্বোচ্চ ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ৯৭৫ জন। নতুন করে ...
READ MORE
সিলেটের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আর নেই।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরান মারা গেছেন।ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন।  ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ...
READ MORE
করোনায় করনীয় বিষয়ে রোববার প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন
মাশরাফি একটা হীরার টুকরা—শেখ হাসিনা
করোনায় আজ ৩৫ জনের মৃত্যু,নতুন করে আক্রান্ত ২৪২৩
হংস বলাকা উদ্ধোধন করলেন প্রধান মন্ত্রী
গুরুতর অসুস্হ্য ওবায়দুল কাদের কে সিঙ্গাপুরে প্রেরন
শোক দিবসে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন।
মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া
ফুলেল শ্রদ্ধায় শহীদদের স্মরন
করোনায় আরও ৪৫ জনের মৃত্যু,নতুন আক্রান্ত ৩১৭১ জন
সিলেটের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আর
Spread the love
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।